গয়নাবাড়ির কাগজের গয়না


আমাদের প্রতিদিনের ফেলে দেওয়া নানা কাগজ থেকে যে হয়ে উঠতে আকর্ষিণীয় সব গয়না, সেরকমই কিছু করে দেখিয়েছেন নাসিমা খন্দকার। পরিবেশবান্ধব বিভিন্ন প্রোজেক্টে আগ্রহ থেকেই অনেকটা কৌতূহল বসেই তিনি শুরু করেন কাগজের বিডস বানানো আর সাথে নিজের কিছু আইডিয়া যোগ করে ‘গয়নাবাড়ি’ নামে কাগজের বিডস দিয়ে বানানো গয়নার অনলাইন স্টোরটি শুরু করে ২০১৬ এর ১৪ এপ্রিল।

তিনি বলেন পেপার,রেপিং পেপার বা নিউজপ্রিন্টের কাগজ পছন্দানুযায়ী গোলাকৃতি বা বরফি আকৃতিতে কেটে আঠা দিয়ে লেয়ার করে শক্ত কাঠের পুঁতির মতো করে ফেলা সম্ভব। বানানোর পর তিনটি স্তরে সিল করায় পুঁতিগুলো দারুণ শক্ত ও পানি প্রতিরোধক হয়। এসব নানাকৃতি পুঁতি দিয়ে বিভিন্ন মালা,কানের দুল গঠন সম্ভব। এই গয়নাগুলো অত্যন্ত হালকা তাই আরামদায়ক। আর যাদের মেটালে অ্যালার্জি আছে তাদের জন্যও অনেক নিরাপদ। বিশ্বব্যাপী পরিচিত এই গয়নার বিডস বানানোর প্রসেস অনেক লম্বা হওয়ার এই গয়নাগুলোর দাম একটু বেশি হয়ে থাকে।

তিনি বর্তমানে একটি বেসকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে মার্কেটিং পরিচালক হিসাবে কর্মরত আছে। চাকরির পাশাপাশি তিনি এই ভিন্ন ধারার কাজ করে যাচ্ছেন। এসব কাজে পরিবারের কাছ থেকে তিনি সবসময় উত্সাহ পেয়েছেন। তার পড়াশোনা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মার্কেটিং বিভাগে। তিনি বলেন,ছোটবেলা থেকেই ব্যতিক্রমী নানা কাজ করার ইচ্ছা ছিল। এক সময় নেট ফ্লাওয়ার নিয়েও কাজ করেছি। শতভাগ পুনব্যবহারযোগ্য উপকরণ ব্যবহার করে গয়নাগাটি তৈরির এ ধারণাকে তিনি এদেশে ছড়িয়ে দিতে চান। এজন্য তিনি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ওয়ার্কশপ করতে আগ্রহী। শিল্পে এই নতুন ধারাকে সবার মাঝে ছড়িয়ে দেওয়া তার নতুন প্রকল্পগুলোর মাঝে একটি।

0