পাঁচফোড়নের ইলশেগুঁড়ি…..


এবারই প্রথম বারের মত দেশীয়  ডিজাইনার গহনা ও টিপের অনলাইন পেজ দয়ীতা  অন্যতম আয়োজক হিসেবে থাকছে পাঁচফোড়নের ইলশেগুঁড়িতে।

‘পাঁচফোড়ন’ হলো সম্পূর্ণ দেশীয় আর ভিন্নধর্মী শৈল্পিক ভাবনায় বিশ্বাসী। রন্ধনশিল্পে পাঁচফোড়নের ব্যবহার যেমন খাদ্যে যোগ করে ভিন্ন স্বাদ ঠিক সেভাবেই দেশীয় পণ্যের সমাহারে ভিন্ন রুচির আয়োজন নিয়ে কাজ করতে চায় ‘পাঁচফোড়ন’।দেশের শিল্প আর দেশী পণ্য নিয়ে কাজ করেন তাদের জন্য ‘পাঁচফোড়ন’ একটা অন্যতম প্লাটফর্ম। পাঁচফোড়নের অন্যতম আয়োজন হল ‘ইলশেগুঁড়ি’ । বসনে, সজ্জায় ও রসনায় দেশী পণ্যকেই যারা প্রধান্য দেন, তাঁদের জন্য ‘পাঁচফোড়ন’ এর প্রদর্শনীর নাম হলো ইলশেগুঁড়ি।

পাঁচফোড়নের ইলশেগুঁড়িতে ১৪ টি দেশীয় পণ্যের উদ্যোক্তারা থাকছেন তাদের পণ্য নিয়ে। যেসব উদ্যোগ অংশগ্রহন করবে সেগুলো হলো গড়ন, সুরঞ্জনা বাই তৃপ্তি, খাদি, সরলা, দয়ীতা , টেন্টারেলী, বোকা বাক্স, হোম জাংশন উইথ লিটল হিউম্যান, বহু, নওরিন’স আর্ট , পিওর বাংলাদেশ, বাটার বেয়ার বেকারী, রেজুয়ানা হাবিব’স ফুডোলোজি, লিটল সানসাইন।

ব্যাতিক্রমী এই আয়োজন  সবার জন্য উন্মুক্ত। প্রদর্শনীতে নানা ধরনের জিনিস প্রদর্শনী ও বিক্রির জন্য থাকবে। থাকবে নানান রকম শাড়ি,পান্জাবী, বাচ্চাদের জামা, সেলোয়ার-কামিজ সেট, ডাই ওড়নাসহ অঙ্গ সজ্জার সামুগ্রী, গহনা, জুতা, ডিজাইনার টিপ, গ্রামীণ খাঁটি খাদ্য পণ্য, তেল, ঘি তো  থাকছেই সেই সাথে রয়েছে বাচ্চাদের জন্য কাঠের পাজল, বিভিন্ন স্বাদের খাবার ।  চাইলে যে কেউ সময়-সুযোগ করে ঘুরে আসতে পারেন, কেনাকাটা করতে করতে একটু জিরিয়ে নিতে  পারবেন পিয়ানোর মধুর সুর আর ঘরোয়া সংগীত এর মাদকতায়, চাইলে দুই লাইন গান গাওয়ারও সুযোগ আছে।নয়ন জুলফিকার তুর্য আসছে ২ তারিখ সন্ধ্যায় তার পিয়ানোর জাদু নিয়ে ইলশেগুঁড়িতে।  পছন্দ সই ঈদ উল আযহা ও পূজার কেনাকাটাও সেরে ফেলতে পারেন এখান থেকে।

 

পণ্য কেনা-বেচার  পাশাপাশি পাঁচফোড়নের ইলশেগুঁড়িতে এবার সম্মাননা জানানো হবে গুনী  ঐতিহ্যবাহী সিনেমার ব্যানার পেইন্টার মোহাম্মদ হানিফ পাপ্পু কে। মাত্র ৬ বছর বয়সে প্রথম সিনেমার ব্যানার আঁকেন তিনি তারপর আর থামেন নি।তবে ২০০০ সালে সিনেমায় ব্যানার বন্ধ  হয়ে গেলে তাঁর কাজও থমকে যায় তবে আবারও ঘুরে দাঁড়ান তিনি তবে এবার আর ব্যানারে নয় ক্যানভাসে তবে থেকে যায় তাঁর নিজস্ব স্টাইল। দেশ বিদেশে তাঁর কাজের অনেকগুলো প্রদর্শনী হয় সাথে অর্জন করেন দারুন শুভাশিস। তিনি ব্যানার পেইন্টের পাশাপাশি ঐতিহ্যবাহী রিক্সা আর্ট ও মর্ডান আর্ট এর চর্চা করেন।পাঁচফোড়ন পরিবার এই গুণী মানুষটিকে শ্রদ্ধা জানাবে এই আয়োজনে।

প্রদর্শনী  চলবে  শুক্র –শনি , ২রা এবং ৩রা আগস্ট, এই দুই দিন, বনানী ২০ নম্বর রোডে, ক্লে ষ্টেশন এ।

 

0