ফিনারীর শো-রুম


২০১৬ থেকে অনলাইনে বিজনেস করা শুরু করে ‘ফিনারী’। প্রতিটি মানুষই চায়  নিজের শরীর থেকে শুরু করে ঘরের দেয়াল কিংবা পড়ার টেবিল সবকিছুই হওয়া চাই অন্যদের চেয়ে একটু আলাদা, যাতে করে ভিন্নধর্মী ও আধুনিক রুচিবোধের প্রকাশ পায়। ফিনারি তার নিজস্ব ডিজাইনে এমন কিছু জিনিস নিয়ে অনলাইন ব্যবসা শুরু করে।

ফিনারীর বিশেষত্ব হচ্ছে, তাদের সকল ধরনের প্রোডাক্টেই থাকে রিক্সা পেইন্টের ছোঁয়া ও রঙের বাহারি  ব্যাবহার। মূলত ফিনারীই রিক্সা পেইন্টের জনপ্রিয়তা ও ক্রেতা সৃষ্টি করে। গত তিন ধছর ধরে সফল ভাবে অনলাইন ব্যবসা করার পর চলতি বছরে ২রা আগস্ট ফিনারীর প্রথম শো রুম উদ্বোধন হতে যাচ্ছে বনানীতে। শোরুমের  পরবর্তীতে পুরো বাড়ী নিয়ে বিভিন্ন ধরনের প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করার চিন্তা-ভাবনা আছে।শোরুমে ক্রেতাদের জন্য সুবিধা হলো স্বচক্ষে যেকোন জিনিস দেখে কেনার সুযোগ আছে। উদ্বোধনীর সারামাস জুড়ে ক্রেতারা পাবেন কেনা-কাটার উপর বিশেষ ছাড়।ফিনারীর স্বত্বাধিকারী ড চিং চিং এর  লক্ষ্য পরবর্তী বছরেই আরো একটি শোরুম খোলার।শোরুমে থাকবে রিক্সাপেইন্টের যাবতীয় দৈনন্দিন ব্যবহারের জিনিস ও পোশাক,শাড়ী,গহনা,আদিবাসী পোশাক, গহনা ইত্যাদি। অন্য সবার থেকে ফিনারী আলাদা এজন্য ফিনারী কাজ করে একটু আলাদা থিম নিয়ে। রিক্সাপেইন্টের বাহারী ডিজাইনে তারা  চিরাচরিত একধাজে না করে শাড়ী ও অন্যান্য পোশাকেও ব্যবহার করে আসছে।ডিজাইন সম্পুর্ণ ফিনারীর নিজস্ব।

আগামী ২ আগস্ট (শুক্রবার) বিকেল ৫.০০ টায় ফিনারী’র প্রথম আউটলেট “শুভ উদ্বোধন” হবে। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে থাকবেন আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের রিক্সা আর্ট  পরিচয় করিয়ে দেয়া শিল্পী সৈয়দ আহমাদ হোসাইন ও সিনেমা পোষ্টারের জীবন্ত কিংবদন্তি মোহাম্মদ হানিফ পাপ্পু।এটি সবার জন্য উন্মুক্ত।
ঠিকানাঃ বাড়ি# ৬৩,রোড# ১৫,ব্লক# ডি,বনানী,ঢাকা -১২১৩।
সময়ঃ শুক্রবার,বিকাল- ৫.০০ টা।

0