ব্যবসার প্রচারনায় করনীয় ৫ টি উপায়


আমরা ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা সব সময়ই ব্যবসার প্রচার –প্রচার এক ধরনের অস্থিরতার মধ্যে থাকি ! না পারি ঠিক মতো প্রচার – প্রচারনা করতে আবার না পারি চুপচাপ বসে থাকতে । ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের প্রচার –প্রচারনার জন্য কখনোই কেমন কোন বাজেট থাকে না ফলে তারা আসলে বুঝতে পারে না ঠিক কিভাবে, কোন সময়ে, কোথায় ব্যাবসার প্রচার- প্রচারনা করতে হবে আবার ব্যবসার একটু মন্দাভাব দেখা দিলেই প্রচার – প্রচারনার বাজেট বাড়িয়ে দেন ফলে পরবর্তীতে কাঙ্খিত লাভ হয় না । ফলে ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের কাছে ব্যবসার প্রচার – প্রচারনা মানেই যেন বাড়তী খরচ । আসলেই কি তাই ?

ব্যবসার প্রচার – প্রচারনার জন্য কোন সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য না থাকা :

বেশির ভাগ ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের ব্যবসার প্রচার – প্রচারনার জন্য সুনির্দিষ্ট কোন লক্ষ্য থাকে না । ফলে এর জন্য তাদের আলাদা কোন বাজেটও থাকে না ফলে তারা কখনই হিসাব করতে পারে না যে, তাদের ব্যবসার প্রচার –প্রচারনায় যে ব্যায় করছেন তার বিপরীতে আসলে তাদের কতটাকা লাভ হচ্ছে । ফলে তারা ব্যবসার প্রচার – প্রচারনাকে অনেক সময় তলা বিহীন ঝুড়ীর সাথে তুলনা করে থাকে । আমাদের কাছে প্রায়ই ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা এসে বলে যে, ভাই “এত প্রচার করি, কিন্তু কোন লাভ নাই” অথবা “এ বছর অনেক টাকা খরচ করে ফেলেছি আর ব্যবসার প্রচার-প্রচারনার টাকা নাই “ এগুলোই ইঙ্গিত করে যে আসলে আমরা উদ্যেশ্যে বিহীন, লক্ষ্য বিহীন আমাদের প্রচার প্রচারনা চালাই বলেই আমরা আমাদের ব্যবসার প্রচার –প্রচারনার মাধ্যমে কাঙ্খিত ফলাফল অর্জন করতে পারি না । তাই আমরা কতো টাকা ব্যবসার প্রচার –প্রচারনার জন্য খরচ করলাম সেটি বড় কথা নয় । বড় কথা হলো আমরা কতোটা লক্ষ্যঠিক করে আমরা আমাদের ব্যবসার প্রচার প্রচারনা করতে পারলাম । যে যত বেশি সঠিক লক্ষ্য নির্ধারন করে ব্যবসার প্রচার প্রচারনা চালাতে পারবে সে ততো বেশি প্রচার –প্রচারনার মাধ্যমে ব্যবসায়িক সফলতা নিয়ে আসতে পারবে ।

সুনির্দিষ্ট পণ্যের প্রচার প্রচারনার করা :

আমরা বেশির ভাগ সময়ই দেখি যে, ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা তারা তাদের সকল পণ্যের প্রচার –প্রচারনা এক সাথে করে থাকেন । এটা কোম্পানীর ব্র্যান্ডিং এর জন্য ভাল কিন্তু এতে করে কাঙ্খিত ফলাফল আসতে সময় লাগে । যেমন : একটি কোম্পানী মোবাইল, ঘড়ি, ইলেকট্রনিক্স পণ্য ইত্যদি বিক্রয় করেন । এখন সবগুলো পণ্যের প্রচার –প্রচারনা যদি আপনি এক সাথে করতে থাকেন তাহলে কি হবে ? আমি হয়তো একটি ঘড়ি কিনবো, কিন্তু ঘড়ি পাশাপাশি আমার কাছে মোবাইল, ইলেকট্রনিক্স পণ্য সব কিছুর প্রচারই আমার কাছে চলে আসলো কিন্তু আমি ঘড়ি ছাড়া আর কিছুই এখন কিনবো না তাহলে আপনার অন্য যে সকল পন্য আছে সেগুলোর জন্য আপনি যে, টাকা খরচ করলেন সেখান থেকে কিন্তু আপনি কোন রেভিনিউ নিতে পারলেন না । হয়তো পরে কোন দিন যদি আমি সেই পন্য কিনি তাহলে আপনি লাভবান হবেন কিন্তু এই একই টাকা খরচ করে যদি আপনি আলাদা আলাদা করে প্রচার – প্রচারনা চালাতেন যার যেটা দরকার, তার কাছে সেটাই প্রচার করা তাহলে আপনি অল্প খরচে বেশি লাভবান হতে পারতেন । একটা প্রচলিত কথা আছে “সবসময় সব জায়গায় নিজেকে জাহির করতে হয় না, এতে লাভের চাইতে লোকসান বেশি হয় ” ব্যবসার প্রচার –প্রচারনার ক্ষেত্রেও এটি প্রযেজ্য ।

নিজে নিজের মতো প্রচার করুন :

আমরা যারা ক্ষুদ্র উদ্যোগ এর সাথে জড়িত তারা কেন জানি নিজেদেরকে ছোট ভাবতে এবং ছোট করে চিন্তা করতেই ভালবাসি !! আমরা সব সময় বড় বড় কোম্পানীর প্রচার –প্রচারনা দেখে, তাদের মতো করে আমাদের ব্যবসার প্রচার –প্রচারনা করতে ভালবাসি কিন্তু আমরা কি একবারও ভেবে দেখেছি যে, আমি যে উদ্যোগ এর সাথে জড়িত,আমার যে পণ্য সে পণ্য সম্পর্কে আমার চাইতে কেও ভাল বলতে পারবে না । তাই আমি আমার পন্যের প্রচার – প্রচারনা যেভাবে সম্ভব /ভাল মনে করি সেভাবেই করবো ( গ্রোথ হ্যাকিং) যাতে করে আমি সেই সব বড় বড় কোম্পানীর প্রচার – প্রচারনা মধ্যে হারিয়ে না যাই । একটা কথা মনে রাখতে হবে আমার পণ্যের যদি USP ঠিক থাকে এবং পণ্যের MVP ঠিক থাকে তাহলে ক্রেতা আমার পণ্য কিনতে বাধ্য । তাই নিজে নিজের মতো করে ব্যবসার প্রচার –প্রচারনা চালান অন্যকে অনুসরন না করে ।

সব সময় পণ্যের চাহিদা-সরবরাহ-উৎপাদন এর তথ্য সম্পর্কে খবর রাখুন:

আমরা ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা তথ্য সংগ্রহ এবং তথ্য বিশ্লেষন এ বিশ্বাস করি না বল্লেই চলে । কোন ক্ষুদ্র উদ্যোক্তার কাছে যদি জানতে চাওয়া হয় যে গতমাসের আপনার পণ্যের চাহিদা-সরবরাহ এবং উৎপাদন এর একটা তথ্য দিন । বেশিরভাগ উদ্যোক্তাই আমার মনে হয় ডকুমেন্ট না দেখে এর উত্তর দিতে পারবে না । অথচ এই তথ্যগুলোই আপনার ব্যবসার প্রচার-প্রচারনার লক্ষ্য নির্ধারন করার মুল এবং প্রধান হাতিয়ার । আপনার হাতিয়ার কতটুকু শক্তিশালী, কি পরিমান ধারালো, কতটুকু সামাথ্যবান এই তথ্য যদি আপনি না জানেন, প্রতিটি মুহূর্তে যদি এই তথ্য আপনার কাছে আপডেটেড না থাকে তাহলে আপনি কি করে এই যুদ্ধে ক্ষেত্র ( বাজার দখল ) আপনি জয়ী হবেন ? কি করে বুঝবেন কখণ আপনার উৎপাদন বাড়াতে হবে , কখন আপনার চাহিদা বেশি থাকে , কখন আপনি সরবরাহ করতে ব্যার্থ হন ইত্যাদি ।
আপনি যতো বেশি এই সকল তথ্য সম্পকে আপডেটেড থাকবেন ততো বেশি আপনি সফল, সঠিক , সুনির্দিষ্টভাবে , আপনার ব্যবসার জন্য প্রচার – প্রচারনার চালাতে পারবেন ।

পাগলের মতো প্রচার করা, ছাগলের মতো খেতে শেখা এবং শিয়ালের মতো চতুর হতে হবে :

এই কথাগুলোর সাথে অনেকেই দ্বিমত পোষন করতে পারেন। কিন্তু আমি ব্যক্তিগতভাবে এই লাইন এর সাথে সহমত । আমি এই লাইনটির মাধ্যমে যা বলার চেষ্টা করেছি তাহলো । আপনি আপনার ব্যবসার প্রচার –প্রচারনার জন্য যে লক্ষ্য নির্ধারন করবেন তা বাস্তবায়ন এর জন্য আপনাকে পাগলের (উদাহরন হিসাবে ব্যবহার করেছি, ছোট করবার জন্য নয় ) মতো কাজ করতে হবে । অর্থাৎ একই কাজ আপনাকে বার বার করতে হতে পারে আবার এমন পরিশ্রম করতে হতে পারে যা আপনি কল্পনাও করতে পারেননি আবার এমন পোশাক পরিধান করতে হতে পারে যা আপনার ব্যক্তিগত বৈশিষ্টের সাথে যায় না । ঘটনা যাই হোক না কেন আপনাকে আপনার ব্যবসার প্রচার প্রচারনার জন্য পাগলে মতো আপনার লক্ষ্য অর্জনে কাজ করে যেতে হবে । আপনার এই পাগলের মতো কাজ করা দেখে অনেকেই আপনাকে নিয়ে আলোচনা করবে, সমালোচনা করবে, পাগল বলবে , আরো অনেক কিছু বলতে পারে, ছাগল যেমন সব কিছু খায় ঠিক তেমনি আপনিও সব কিছু শুনবেন, বুঝবেন, বিশ্লেষন করবেন এরপর শিয়ালের মতো চতুরভাবে আপনার ব্যবসার জন্য যেগুলো ভাল , যেগুলো আপনার ব্যবসার উন্নয়নে কাজে লাগবে সেগুলো মাথার মধ্যে সংরক্ষণ করবেন এবং বাকিগুলো এক কান দিয়ে শুনে আরেক কান দিয়ে বের করে দিবেন ।

লিখেছেনঃ আমিনুল ইসলাম; সিইও, শাহীন’স হেল্প লাইন।

0